রিভিউসেরা ৫

ভিভো ৪টি সেরা অফিসিয়াল মোবাইল দাম ২০২১

সূচিপত্র দেখুন

বর্তমানে অনেকেই চাচ্ছেন যে vivo কোম্পানির একটি স্মার্টফোন কিনতে, কিন্তু আপনি অনেক খোঁজাখুঁজির পরেও মোবাইল ফোন চয়েজ করতে পারছেন না যে আপনি কোন মোবাইল ফোনটি কিনবেন ?

আজকের পোষ্টে আপনাদের সাথে শেয়ার করব ভিভো কোম্পানির ৪টি কম বাজেটের সেরা ফোন। যেগুলো আমাদের দেশে বর্তমানে এভেইলেবেল রয়েছে। কথা না বাড়িয়ে চলুন শুরু করা যাক।

ভিভোর সেরা ৪ টি ফোনের মধ্যে প্রথমে আমি Vivo y12s নিয়ে আলোচনা করেছি। চলুন জেনে নেই কি কি ফিচার আছে এই স্মার্টফোনে।

Vivo y12s

বর্তমানে ভিভো কোম্পানির মোবাইল ফোনের বাজারে এই ফোনটি কম বাজেটের মধ্যে একটি সেরা ফোন বলা যেতে পারে। এই ফোনটির 3/32Gb ভ্যারিয়েন্টের বাংলাদেশ অফিশিয়াল প্রাইস রাখা হয়েছে 11 হাজার 990 টাকা।

ফোন টিতে থাকছে 6.5 ইঞ্চি  HD+ রেজুলেশনের ডিসপ্লে। আর চিপসেট হিসেবে এই ফোনটিতে থাকছে MediaTek helio p35। 
এই ফোনটি দিয়ে পাবজি গেম খুব ভালো ভাবে খেলা না গেলেও আপনি ফ্রী ফায়ার গেমটি খুব সহজেই এই ডিভাইসটিতে খেলতে পারবেন । 

ফোনটির পিছনে থাকছে ১৩ মেগাপিক্সেলের একটি ক্যামেরা, এর পাশাপাশি থাকছে 2 মেগাপিক্সেলের এর একটি সেন্সর। আবার এর সাথে থাকছে সামনে 8 মেগাপিক্সেল এর একটি সেলফি ক্যামেরা। 

12000 টাকা দাম বিবেচনায় এই ফোনটির ক্যামেরা পারফরম্যান্স আমার কাছে ভালো লেগেছে। এবং এই ফোনটিতে থাকছে 5000mah ব্যাটারি এবং সেটাকে চার্জ করার জন্য 10 ওয়াটের একটি চার্জার।
সব মিলিয়ে 12000 টাকায় এই ফোনটি আমার কাছে ভালই মনে হয়েছে।

vivo y20

এই ফোনটির ৪/৬৪ জিবি ভেরিয়েন্ট এর বাংলাদেশ অফিশিয়াল প্রাইস রাখা হয়েছে 13 হাজার 990 টাকা । ফোনটিতে ব্যবহার করা হয়েছে 6.5 ইঞ্চি HD+ প্লাস রেজুলেশন একটি আইপিএস এলসিডি   ডিসপ্লে।

আর এই ফোনটি আপনার কাছে ভালো লাগবে এর রেয়ার পার্ট এর ডিজাইন। এই ফোনে চিপসেট হিসেবে থাকছে snapdragon 460। 

ফোনটির পিছনে থাকছে ত্রিপল ক্যামেরা সেটআপ, 13 মেগাপিক্সেলের এর প্রাইমারি ক্যামেরার পাশাপাশি 2 মেগা পিক্সেলের ম্যাক্রো এবং 2 মেগাপিক্সেল এর ডিপসেন্সিং লেন্স। আর ফোনটির সেলফিতে থাকছে 8 মেগাপিক্সেল ক্যামেরা।

ব্যাটারি সেকশনে থাকছে 5000 মিলি এম্পিয়ার এর ব্যাটারি। সেইসাথে ১৮ ওয়াটের ফাস্ট চার্জার। সব মিলিয়ে 14 হাজার টাকা বাজেটের যতগুলো ফোন বাংলাদেশে আছে তার মধ্যে সেরা বলা যায় এটিকে।

vivo y30

আপনি যদি 17 হাজার টাকা দামের মধ্যে ভিভো কোম্পানির একটি ভালো মোবাইল ফোন কিনতে চান তাহলে আমি আপনাকে অবশ্যই এই মোবাইলটি সাজেস্ট করবো।

ডিসপ্লে হিসেবে ফোনটিতে থাকছে 6.4 ইঞ্চি এইচডি প্লাস রেজুলেশনের ডিসপ্লে।
আর চিপসেট হিসেবে থাকছে MediaTek helio p35। অনেকেই হয়তো এই 17 হাজার টাকা দামের মোবাইলে ৬.৪ ইঞ্চি HD+  রেজুলেশনের ডিসপ্লে এবং MediaTek helio p35 প্রসেসর নাও মানতে পারেন।

এর পিছনে থাকছে 4 টি ক্যামেরা যার প্রাইমারি সেন্সরটি হচ্ছে 13 মেগাপিক্সেল এর । তারপর একটি 8 মেগাপিক্সেল এর আর দুইটি 2টি মেগাপিক্সেল এর এবং ফোনটির সেলফিতে থাকছে ৮ মেগাপিক্সেল এর একটি কামরা।

ফোনটিতে প্রবাহিত করা থাকবে ৫০০০ মিলি এম্পিয়ারের লিথিয়াম আয়ন ব্যাটারি সেই সাথে ১০ ওয়াটার একটি চার্জার।  আর এর সব থেকে ভালো দিক হচ্ছে এতে ব্যবহার করা হয়েছে Snapdragon 665 এর মত জনপ্রিয় প্রসেসর।

vivo y15

এই ফোনটির ৪/৬৪ জিবি ভেরিয়েন্ট এর  বাংলাদেশ অফিশিয়াল প্রাইস রাখা হয়েছে 16990 টাকা। এতে ব্যবহার করা হয়েছে 6.35 inches HD+ Resolution 720 x 1544 pixels (268 ppi) display।

এতে আরও থাকছে 13+8+2 Megapixel এর ত্রিপল ক্যামেরা সেটআপ। যেগুলো দিয়ে আপনি খুব সহজেই 1080p রেজুলেশনের ভিডিও রেকর্ড করতে পারবেন।

ফোনটিতে ব্যবহার করা হয়েছে 5000 mah ব্যাটারীর সাথে 15 ওয়াটের একটি ফাস্ট চার্জার। আর এই ফোনটার সবথেকে ভালো দিক হচ্ছে এর ডিজাইন, চোখ ধাঁধানো ডিজাইন এই ফোনটির।

তো বন্ধুরা এই ছিল আমাদের আজকের আয়োজন ৪টি ভিভো কোম্পানির মোবাইল ফোন যেগুলো আমার কাছে সেরা মনে হয়েছে। এখান থেকে কোন ফোনটি আপনার ভালো লেগেছে অবশ্যই জানাবেন। ধন্যবাদ ভাল থাকবেন সবাই।


লেখা পাঠিয়েছেঃ খন্দকার অভি 

সম্পর্কিত আর্টিকেল

২ মন্তব্য

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

Back to top button

অ্যাডব্লকার ডিটেক্টেড

আপনি সম্ভবত অ্যাডব্লকার ব্যবহার করছেন। আমাদের সাইট ভিজিট করতে চাইলে অবশ্যই অ্যাডব্লকার ডিজেবল করতে হবে।