অনলাইন আয়

ইউটিউব থেকে আয় করার উপায় ২০২১

ইউটিউব থেকে অনেকে ইনকাম করে এটা হয়তো সবাই জানেন। কিন্তু কিভাবে তাদের ইনকাম হয় এটা কি জানেন। আজ আমি আলোচনা করবো ইউটিউবাররা কিভাবে টাকা ইনকাম করে। দেরি না করে চলুন শুরু করি।

গুগল এডসেন্স

ইউটিউব থেকে ইনকামের প্রধান উৎস গুগল এডসেন্স। যদি আপনার চ্যানেল এক হাজার সাবস্ক্রাইবার এবং চার হাজার মিনিট ওয়াচটাইমের মাইলস্টোন পার করে ফেলে তাহলে আপনি ইউটিউব থেকে মনিটাইজেশন পাবেন। তখন আপনার ভিডিওতে গুগলের বিজ্ঞাপন দেখাবে। সেখান থেকেই আপনি ইনকাম করতে পারবেন।

বিভিন্ন বড় বড় কোম্পানি তাদের বিজনেস প্রমোট করার জন্য গুগলের কাছে বিজ্ঞাপন দেয়। সেই বিজ্ঞাপন দেখানোর জন্য গুগলকে টাকা দেওয়া হয়। এরপর গুগল ইউটিউব এবং বিভিন্ন ওয়েবসাইটে বিজ্ঞাপন দেখায়। তখন গুগল তাদের মোট ইনকামের কিছু অংশ রেখে যাদের ভিডিও অথবা সাইটে বিজ্ঞাপন দেখানো হয় তাদের দিয়ে দেয়। এভাবেই ইউটিউবে বেশিরভাগ ইনকাম হয়ে থাকে।

অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং

ধরুন আপনি কোনো কোম্পানির পন্য বিক্রি করতে সাহায্য করলেন। এখন আপনি যে সাহায্য করলেন তার বিনিময়ে অবশ্যই সেই কোম্পানি আপনাকে কিছু কমিশন দেবে। একেই অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং বলা হয়। 

বড় বড় ইউটিউবার ডেস্ক্রিপশন বক্সের মাধ্যমে অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং করে থাকে। এটি একটি সাইড ইনকাম হিসেবে ধরা যায়। বর্তমানে সবথেকে জনপ্রিয় অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং নেটওয়ার্ক অ্যামাজন।

আপনি যদি ইউটিউব থেকে মনিটাইজেশন না পান তাহলে অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং করে মোটা অংকের টাকা ইনকাম করতে পারবেন। শুধু যে অ্যামাজন অ্যাফিলিয়েট করতে পারেন তা নয়। বাংলাদেশেও অনেক অ্যাফিলিয়েট নেটওয়ার্ক আছে সেগুলোও ব্যবহার করতে পারেন।

স্পন্সর

ধরুন আপনার চ্যানেল অনেক জনপ্রিয় এবং আপনার কন্টেন্ট অনেক মানুষ পছন্দ করে।এখন কোনো নতুন কোম্পানি প্রমোট করতে চায়। এখন তারা যদি আপনার ভিডিও টার্গেট করে তাদের পন্য প্রচার করে তাহলে অনেক তাড়াতাড়ি তাদের পন্য জনসম্মুখে আসবে।

আপনি তো আর ফ্রি ফ্রি তাদের পন্য প্রচার করে দিবেন না। এর জন্য অবশ্যই তাদের টাকা দেওয়া লাগবে। এটাই মুলত স্পন্সর।
যদি আপনার চ্যানেল অনেক জনপ্রিয় হয় তাহলে অনেকে স্পন্সর দেবে। সেখান থেকে আপনি অনায়াসে অনেক টাকা ইনকাম করতে পারবেন। বড় বড় ইউটিউব চ্যানেল তাদের ইনকামের সত্তর ভাগ স্পন্সর থেকে করে। আপনার চ্যানেল যদি মনিটাইজেশন না পায় তাহলে স্পন্সর নিয়ে অনেক টাকা ইনকাম করতে পারবেন।

শর্টলিংক

যারা একেবারেই নতুন তারা শর্টলিংকের মাধ্যমে কিছু টাকা ইনকাম করতে পারেন। বর্তমানে বিভিন্ন ধরনের লেজিট শর্টলিংক সাইট তৈরি হয়েছে। আপনি চাইলে একটি বড় লিংক শর্টলিংক সাইটের মাধ্যমে ছোট করতে পারেন।

শর্টলিংক থেকে ইনকাম বেশি হয়না। তবে হাত খরচ চালানোর মতো ইনকাম আপনার হয়ে যাবে। যারা মনিটাইজেশন পায় না তারা শর্টলিংক সাইটের মাধ্যমে ইনকাম করে। বিভিন্ন ধরনের শর্টলিংক সাইট আছে। এগুলোর মধ্যে কিছু পেমেন্ট করে না এবং কিছু সাইট পেমেন্ট করে। পেমেন্ট করা সাইট গুলোর মধ্যে Adfly, shrinkearn জনপ্রিয়।

অনলাইন বিজনেস

আপনার ভিডিওতে যদি ভালো ভিউ থাকে তাহলে অনলাইন বিজনেস প্রমোট করতে পারেন। যেসব জিনিস অনলাইনে বেচার যোগ্য সেসব জিনিস আপনার ভিডিওর মাধ্যমে বেচতে পারেন।

এভাবে আপনি ভালোই ইনকাম করতে পারবেন। তাছাড়া আপনার অনলাইন বিজনেস ভালো অবস্থানে এসে গেলে পরে অনেক টাকা ইনকাম করতে পারবেন।

রেফার

এটি অনেকটা আফিলিয়েট ইনকামের মতো। বিভিন্ন ধরনের সাইটে রেফার করে ইনকামের সুযোগ থাকে বিশেষ করে আর্নিং সাইট গুলোতে। এখন আপনি যদি সেই আর্নিং সাইট নিয়ে আলোচনা করেন এবং রেফার লিংক দেন তাহলে সেই সাইট থেকে ভালো পরিমাণে  ইনকাম করতে পারবেন।

অনেকে এইভাবে ইনকাম করে। যদি চ্যানেল মনিটাইজেশন না পান তাহলে এভাবে হাত খরচ চালানোর মতো ইনকাম সহজেই এসে যাবে।


শেষ কথাঃ উপরোক্ত আলোচনার মধ্যে সবথেকে বেশী ইনকাম হয় গুগল অ্যাডসেন্স থেকে। যদি গুগল অ্যাডসেন্স অ্যাপ্রুভ না পান তাহলে বাকি নিয়ম গুলো থেকে সহজেই ইনকাম করতে পারবেন।

আজ এই পর্যন্তই। পরবর্তীতে অনেক শিক্ষামূলক পোস্ট নিয়ে হাজির হবো ততদিন আমাদের ওয়েবসাইটের উপর চোখ রাখুন। অবশ্যই বাড়ি থাকবেন। সবার সুস্বাস্থ কামনা করছি।

চাইলে আমার ব্লগ একটু ঘুরে আসতে পারেন। আমি যা জানি তা শেয়ার করার চেষ্টা করেছি।আমার ব্লগ: onlinetechnews71.blogspot.com

ধন্যবাদ

সম্পর্কিত আর্টিকেল

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

Back to top button

অ্যাডব্লকার ডিটেক্টেড

আপনি সম্ভবত অ্যাডব্লকার ব্যবহার করছেন। আমাদের সাইট ভিজিট করতে চাইলে অবশ্যই অ্যাডব্লকার ডিজেবল করতে হবে।