স্মার্টফোন রিভিউ

শাওমি ১১টি প্রো দাম বাংলাদেশ

শাওমির নতুন চমক টি সিরিজ, শাওমি ১১টি প্রো এখন বাংলাদেশের মোবাইল বাজারে অফিসিয়াল ভাবে পাওয়া যাচ্ছে।

শাওমি ১১টি প্রো অফিসিয়াল দাম

শাওমি ১১টি প্রো মোবাইলের বাংলাদেশে অফিসিয়াল দাম রাখা হয়েছে ৬৪,৯৯৯ টাকা।

শাওমির এ মোবাইলটিতে ৫জি সমর্থন করে সে সাথে বাংলাদেশেও ৫জি নেটওয়ার্ক চলে এসেছে সুতরাং আপনি যদি ৫জি নেটওয়ার্কের স্বাধ গ্রহণ করতে চান তাহলে শাওমি ১১টি প্রো হতে পারে আপনার জন্য সেরা পছন্দ।

শাওমি ১১টি প্রো মোবাইলটির ডিসপ্লে সাইজ ৬.৬৭ ইঞ্চি, ডিসপ্লে রেজুলেশন ১০৮০x২৪০০ পিক্সেল এবং ডিসপ্লে ফিচার হিসাবে অ্যামোলেড টাচস্ক্রীন ব্যবহার করা হয়েছে। শাওমি ১১টি ফোনটিতে ১২০হার্জ রিফ্রেশ রেট দেয়া হয়েছে সে সাথে এ ফোনটির ডিসপ্লে প্রোটেকশন হিসাবে কর্নিং গ্যারিলা গ্লাস ভিক্টয়াস ব্যবহার করা হয়েছে।

ক্যামেরা প্রসঙ্গে শাওমি মোটেও পিছিয়ে নেয় যার প্রমাণ হিসাবে শাওমি ১১টি প্রো। এ ফোনটির ব্যাক ক্যামেরা হিসাবে ৩টি ক্যামেরা ব্যবহার করা হয়েছে যার একটি ১০৮ মেগাপিক্সেল অপর দুটি হলো ৮+৫ মেগাপিক্সেল।
এ ফোনটির সামনে সেলফি ক্যামেরা হিসাবে ১৬ মেগাপিক্সেল ব্যবহার করা হয়েছে।

শাওমির এফোনটি দিয়ে যেমন ভালো ছবি তুলতে পারবেন ঠিক তেমনই ভিডিওগ্রাফি করতে পারবেন। কেনো না এফোনটির ব্যাক ক্যামেরা দিয়ে ৪কে আল্ট্রা এইচডি ভিডিও রেকর্ডিং করা যাবে এবং সামনের ক্যামেরা দিয়ে ফুল এইচডি ভিডিও।

শাওমি ১১টি প্রো অপারেটিং সিস্টেম

শাওমি ১১টি প্রো মোবাইলটিকে আরো বেশি পছন্দ হবে যে কারণে তাহলো এ ফোনটিতে অপারেটিং সিস্টেম হিসাবে এন্ড্রয়েড ১১ ভিত্তিক (এম আই ইউ আই ১২.৫) ব্যবহার করা হয়েছে।

এছাড়াও এ ফোনটিতে প্রসেসর হিসাবে অক্টাকোর ২.৮৪গিগাহার্জ এবং চিপসেট হিসাবে কোয়ালকম স্ন্যাপড্রাগন ৮৮৮ ব্যবহার করা হয়েছে। শাওমি ১১টি প্রো ফোনটির পারফরম্যান্স আরো সুনিশ্চিত করতে ৮জিবি র‍্যাম, ১২৮জিবি এবং ২৫৬জিবি রম বা স্টোরেজ ব্যবহার করা হয়েছে।

এ ফোনটির মাঝে ব্যবহার করা হয়েছে ৬.৬৭ ইঞ্চি ডিসপ্লে, ১০৮ মেগাপিক্সেল ক্যামেরা, স্ন্যাপড্রাগন ৮৮৮ চিপসেট এবং ৮জিবি র‍্যাম। দাম বিবেচনায় কারো কাছে এ ফোনটি ভালো লাগতে পারে আবার কারো কাছে নাও লাগতে পারে কিন্তু এ ফোনটির ডিজাইন এবং ৫হাজার এম্পিয়ারের ব্যাটারি, ১২০ওয়াট কুইক ফাস্টিং চার্জার প্রযুক্তির প্রয়োগ সবারই পছন্দ হবে।

ভাবা যায় ৫হাজার এম্পিয়ার ব্যাটারি ফুল চার্জ হয়ে যাবে মাত্র ১৭মিনিটে। যায় হোক এ ফোনটির সিকিউরিটি সিস্টেম হিসাবে সাইট-মাইন্টেড ফিংগারপ্রিন্ট সে সাথে ফেইস আনলক প্রযুক্তির ব্যবহার করা হয়েছে।

সো, বন্ধুরা এ ছিলো আজকের মোবাইল রিভিউ আশা করি আমাদের এ রিভিউটি আপনার কাছে ভালো লেগেছে এবং আমাদের এ আর্টিকেলটি নিয়ে কোন প্রকার অভিযোগ অথবা মতামত থাকলে অবশ্যই কমেন্ট জানিয়ে দিবেন আমরা তার যথাযথ মূল্যয়ন করার চেষ্টা করবো।

ধন্যবাদ

জাহিদুল ইসলাম

শিখতে ভালোবাসি :)

সম্পর্কিত আর্টিকেল

একটি মন্তব্য

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

এটিও দেখুন
Close
Back to top button

অ্যাডব্লকার ডিটেক্টেড

আপনি সম্ভবত অ্যাডব্লকার ব্যবহার করছেন। আমাদের সাইট ভিজিট করতে চাইলে অবশ্যই অ্যাডব্লকার ডিজেবল করতে হবে।