টেক জ্ঞানটেলিকম

আপনার নিজের নামে কয়টি সিম রেজিস্ট্রেশন আছে জেনে নিন দেখার উপায়

আমার নামে কয়টি সিম রেজিস্ট্রেশন আছে? সিম রেজিস্ট্রেশন চেক অনলাইন।

আমাদের সকলেরই জানা উচিত আমাদের এনআইডি কার্ড (nid) দিয়ে কয়টি সিম রেজিস্ট্রেশন করা হয়েছে।

নিজের ব্যক্তিগত নিরাপত্তার জন্য হলেও আমাদের নিজস্ব সিম রেজিস্ট্রেশন চেক করা অতীব জরুরী। আমরা সকলেই জানি একটি এনআইডি কার্ড (nid) দিয়ে একাধিক সিম নিবন্ধন করা যায়। এখন পর্যন্ত এক জনের জাতীয় পরিচয়পত্র দিয়ে সর্বোচ্চ ১৫টি সিম রেজিষ্ট্রেশন করা সম্ভব হচ্ছে।

এখন যেহেতু একটি এনআইডি কার্ড দিয়ে ১৫টি সিম নিবন্ধন করা যায়, তাই আমাদের সকলেরই জেনে রাখতে হবে কোন সিমগুলো আমাদের নামে রেজিষ্ট্রেশন করা আছে।

যদি না জানেন তাহলে লাভ তো হবেই না বরং ক্ষতি হবে। আজকেই এই আর্টিকেলে আমি জানিয়েছি, কিভাবে আপনি জানবেন আপনার এনআইডিতে কয়টি সিম নিবন্ধিত আছে সেই বিষয়ে।

১০ বছর পূর্বেও বাংলাদেশের সিমগুলো নিবন্ধনের আওতায় ছিলোনা। এর ফলে সিম দিয়ে একাধিক অপরাধ করলেও সিমের প্রকৃত মালিককে খুঁজে পাওয়া যেত না। আর অপরাধ থামানোও বেশ কঠিন হয়ে পড়ছিলো।

বাংলা আর্টিকেল লিখে আয় করার উপায়

কিন্তু ৫-৬ বছর পূর্বে বাংলাদেশে সিম নিবন্ধন প্রক্রিয়া শুরু হয়। সিমের প্রকৃত মালিককে সহজেই সনাক্ত করতে বায়োমেট্রিক পদ্ধতিতে সিম রেজিষ্ট্রেশন শুরু হয় বাংলাদেশে এবং এই প্রক্রিয়া বর্তমানেও চলমান রয়েছে।

আরও পড়ুনঃ  সিম কার নামে নিবন্ধন করা কিভাবে জানবো? Sim kar name registration check

বর্তমানে যে পদ্ধতিতে সিম নিবন্ধন প্রক্রিয়া চলছে তা ভবিষ্যতেও চলবে, এ নিয়ে কোন দ্বিধা থাকার কিছু নেই।

আপনার এনআইডিতে কয়টি সিম নিবন্ধিত আছে?

আপনার নিজের জাতীয় পরিচয়পত্র (এনআইডি) দিয়ে মোট কয়টি সিম রেজিষ্ট্রেশন করা আছে তা আপনি ঘরে বসেই বিনামূল্যে জেনে নিতে পারবেন।

যেভাবে জানবেন আপনার নামে কয়টি সিম আছে

  • প্রথমে যেকোন মোবাইল থেকে *১৬০০১# নাম্বারটি ডায়াল করতে হবে
  • তারপর নতুন একটি অপশন আসবে, এখানে আপনি আপনার এনআইডি বা জাতীয় পরিচয়পত্রের শেষ চারটি সংখ্যা দিয়ে সেন্ড বাটনে ক্লিক দিবেন।
  • এবার কিছুক্ষন অপেক্ষা করলেই আপনার ফোনে একটি ফিরতি মেসেজ আসবে, সেখানে আপনি সহজেই দেখে নিতে পারবেন আপনার নামে কতগুলো সিম রেজিষ্ট্রেশন করা আছে।
আরও পড়ুনঃ  সিম কার নামে নিবন্ধন করা কিভাবে জানবো? Sim kar name registration check

আপনি সঠিকভাবে উপরের প্রক্রিয়াটি অনুসরণ করলে, সহজেই আপনার নামে কতগুলো সিম নিবন্ধন করা আছে তা জানতে পারবেন। যদি কোন সিম দেখেন যেটি আপনার নিকট নেই অথবা আপনি জানেনি না সেটি কার। এর মানে হলো কোন ভাবে ঐ সিমটি আপনার নামে রেজিষ্ট্রেশন করা হয়েছে।

এমন পরিস্থিতি হলে, সঙ্গে সঙ্গে সিম কোম্পানীর সাথে আলোচনা করে সেই সিমটি বন্ধ করে দিবেন, যেই সিমটি আপনার অজান্তেই আপনার নামে নিবন্ধিত আছে।

এনআইডি কার্ড আমাদের জন্য বেশ প্রয়োজনীইয় ও গুরুত্বপূর্ণ একটু ডকুমেন্ট। আমাদের আশেপাশে এমন কিছু অসাধু ব্যবসায়ী আছে যারা অন্যের এনআইডি কার্ড দিয়ে সিম নিবন্ধন করে, এবং সেই সিমটি অধীক দামে বিক্রি করে দেয়। এমতাবস্থায় ঐ সিমটি দিয়ে কেউ কোন বড় ধরণের অপরাধ করলে সিম নিবন্ধন করা ব্যক্তির উপর তার দায়ভার চলে আসে।

আরও পড়ুনঃ  মনিটর কি? মনিটর কত প্রকার ও কি কি? (What is monitor in Bengali)

এরকম ধরণের অপরাধ থেকে বাঁচতে আমাদের সকলেরই উচিত NID দিয়ে কয়টি সিম আছে তা চেক করা। উপরের নিয়ম ফলো করে অবশ্যই দেখে নিবেন আপনার জাতীয় পরিচয় পত্র দিয়ে কতগুলো সিম নিবন্ধন করা আছে।

সিম নাম্বার দিয়ে এনআইডি কার্ড বের করা

অনেকেই আছেন যারা জানতে চায় তাদের সিমটি কার আইডি কার্ড দিয়ে করা হয়েছে। এক্ষেত্রে আপনাকে যেই সিম সমন্ধে জানতে চান সেই সিমের কাস্টমার কেয়ার বা বায়োমেট্রিক পয়েন্টে যেতে হবে। সেখানে যাওয়ার পর তারা তাদের বায়োমেট্রিক পদ্ধতিতে চেক করে আপনাকে জানাবে ঐ সিমটি কোন আইডি কার্ড দিয়ে রেজিষ্ট্রেশন করা আছে। এ প্রক্রিয়ার সাহায্যে আপনি খুব সহজেই নাম্বার দিয়ে আপনার আইডি কার্ড বের করে ফেলতে পারবেন।

মোঃ আশিক মিয়া

মাতৃভাষায় প্রযুক্তি জ্ঞান ছড়ানোর ক্ষুদ্র প্রয়াস। ভালো লাগে প্রযুক্তির জ্ঞান বাংলা ভাষাভাষীদের সাথে ভাগ করে নিতে।

সম্পর্কিত আর্টিকেল

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

Back to top button

অ্যাডব্লকার ডিটেক্ট হয়েছে!

মনে হচ্ছে আপনি অ্যাড ব্লকার ব্যবহার করছেন। আমাদের সাইট ভিজিট করার জন্য আপনাকে অ্যাড ব্লকার বন্ধ করতে হবে। যদি অ্যাডব্লকার ব্যবহার না করেন, তাহলে পেজটি রিফ্রেশ করুন।