টেক জ্ঞানব্লগিং

ব্লগে অ্যাডসেন্স পেতে কি কি লাগে?

যারা ব্লগিং করে তাদের মেইন টার্গেট থাকে গুগল অ্যাডসেন্স থেকে আয় করা। যদিও অনেকে এ বিষয়ে ভালো জানেনা কিভাবে ব্লগ অ্যাডসেন্স অনুমোদন করাবে। তাই আজকে এই পোস্টে আমার অভিজ্ঞতা অনুযায়ী কিছু টিপস শেয়ার করবো যেগুলো ফলো করলে আমি আশা করি আপনাদের ব্লগ অ্যাডসেন্স অনুমোদনে কিছুটা হলেও কাজে আসবে।

তো যেমনটা বললাম,  নিচে আমি কিছু টিপস বা আমার ব্যক্তিগত মতামত শেয়ার করেছি। এগুলো ফলো করেই আমি আমার সাইটে অ্যাডসেন্স অনুমোদন পেয়েছি। তাই আমি আশা করছি আপনারাও যদি এই টিপস গুলো ফলো করেন তাহলে আপনারাও আপনাদের ব্লগে অ্যাডসেন্স অনুমোদন পাবেন।

নিয়মিত পোস্ট শেয়ার করা 

আপনার সাইট অ্যাডসেন্স অ্যাপ্রুভ করানোর পূর্বে আপনার সাইটে নিয়মিত পোস্ট শেয়ার করুন। যদিও গুগল অ্যাডসেন্স নিয়মিত পোস্ট শেয়ার করার উপর তেমন গুরুত্ব দেয় না। কিন্তু নিয়মিত পোস্ট করতে পারলে আপনার সাইটে ভালো পরিমাণে ভিজিটর আসবে। আপনার সাইটে যদি ভালো ট্রাফিক থাকে তাহলে গুগল অ্যাডসেন্স অ্যাপ্রুভ এর পর ভালো পরিমাণে আয় করতে পারবেন।

ইউনিক পোস্ট করা

আপনার সাইটে যতটা সম্ভব কপি বা প্লেজারিজম মুক্ত পোস্ট শেয়ার করুন। গুগল অ্যাডসেন্স প্লেজারিজম যুক্ত পোস্ট পেলে সাইটে অ্যাপ্রুভাল দেয় না। এটা খুবই গুরুত্বপূর্ণ বিষয়। আপনার পূর্বের পোস্টগুলো এবং নতুন যে পোস্টগুলো করবেন সকল পোস্ট প্লেজারিজম আছে কিনা তা যাচাই করে সাইটে প্রকাশ করুন। 

ভালো নিশ সিলেক্ট করা

আজকাল গুগল অ্যাডসেন্স বেশ স্মার্ট হয়ে গিয়েছে। অনেক সাইট দেখেছি যারা নিউজ নিয়ে কাজ করেছে, চলমান কিছু ট্রেন্ডিং নিশ নিয়ে কাজ করছে কিন্তু তাদের সাইটে অ্যাপ্রুভাল দিচ্ছে না। এর সঠিক কারণ আমিও জানিনা। তাই আমি পরামর্শ দিবো নিউজ রিলেটেড নিশ নিয়ে কাজ না করার।

এসইও, টেকনোলজি, গল্প এই টাইপের নিশ নিয়ে যারা কাজ করে তারা সবাই কম বেশী সাইটে অ্যাপ্রুভাল পাচ্ছে।  সুতরাং যারা বর্তমান নিশ নিয়ে অ্যাপ্রুভাল পান নি তারা অন্য নিশ নিয়ে কাজ করেন। পরবর্তী সময় অ্যাপ্রুভাল নিয়ে আবার আগের নিশে ব্যাক করতে পারবেন।

প্রয়োজনীয় পেইজ তৈরি করা

অনেকে বলে গুগল অ্যাডসেন্স পেতে হলে সাইটে নির্দিষ্ট কিছু পেইজ তৈরি করা লাগে। আমিও আমার সাইটে কিছু পেইজ তৈরি করে অ্যাডসেন্স এ আবেদন করেছিলাম। সেক্ষেত্রে আপনিও আপনার ব্লগে কিছু পেইজ তৈরি করে তারপর গুগলে আবেদন করতে পারেন। যে পেইজগুলো তৈরি করবেন সেগুলো যেন আপনার সাইটের পোস্টের ভাষা অনুযায়ী হয়। অর্থাৎ আপনার পোস্টে যদি আপনি ইংলিশ ভাষা ব্যবহার করেন তাহলে পেইজেও ইংলিশ ভাষা ব্যবহার করুন। আর পোস্টের ভাষা বাংলায় হলে পেজেও বাংলা ভাষা ব্যবহার করুন।

অ্যাডসেন্স আবেদনের পূর্বে আপনার ব্লগে সর্বনিম্ন তিনটি পেজ তৈরি করে রাখুন। তিনটির মধ্যে একটিতে ব্লগ সম্পর্কে (About us) আরেকটিতে যোগাযোগ এর মাধ্যম (Contact us) ও অন্যটিতে প্রাইভেসি পলিসি (Privacy Policy) লিখে রাখুন। 

প্রফেশনাল ডিজাইন

অ্যাডসেন্স এ আবেদন করার পূর্বে আপনার সাইটে ভালো একটি থিম ব্যবহার করুন। অ্যাডসেন্স পাওয়াটা এখন আপনার সাইটের ডিজাইনের উপর ডিপেন্ড করে। যদি আপনার সাইটের ডিজাইন এলোমেলো হয় তাহলে আপনার সাইট রিজেক্ট হতে পারে। 

আপনার সাইটের ডিজাইন ক্লিন ও প্রফেশনালভাবে করুন যাতে ভিজিটর বুঝতে পারে আপনার সাইটে কোন ধরনের পোস্ট শেয়ার করা হয়, কোথায় ক্লিক করলে কন ধরনের পোস্ট ওপেন হবে। গুগল অ্যাডসেন্স সাইটের ডিজাইনের উপর ভিত্তি করেও অ্যাডসেন্স অ্যাপ্রুভাল দেয়। হিজিভিজি ডিজাইন না করে ক্লিন ও প্রফেশনাল রাখুন এতে আপনার অ্যাডসেন্স পাওয়ার চান্সেস বেড়ে যাবে। 

পোস্ট সম্পর্কে যেকোন মতামত কমেন্টে জানাতে পারেন। আমরা আপনার মতামতকে গুরুত্বসহকারে দেখি।

সম্পর্কিত আর্টিকেল

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

Back to top button

অ্যাডব্লকার ডিটেক্টেড

আপনি সম্ভবত অ্যাডব্লকার ব্যবহার করছেন। আমাদের সাইট ভিজিট করতে চাইলে অবশ্যই অ্যাডব্লকার ডিজেবল করতে হবে।