টিপস এন্ড ট্রিকসটেক জ্ঞান

5G স্মার্টফোন কেনার আগে যে বিষয়গুলি মাথায় রাখতে হবে (টিপস ও ট্রিকস)

এখন মিড-রেঞ্জ বা প্রিমিয়াম ক্যাটাগরির স্মার্টফোন কিনতে চাচ্ছেন তাদের কাছেও ফাইভ-জি ডিভাইস হলো প্রথম পছন্দের। তাছাড়াও বাজেট ফোন ব্যবহারকারীরাও এখন ফাইভ-জি স্মার্টফোন কেনার জন্য অধিক বেশি কৌতুহলী ও আগ্রহী।

5G স্মার্টফোন কেনার আগে যে বিষয়গুলি মাথায় রাখতে হবে: আসসালামু আলাইকুম, Bangla Techspot এর সুপ্রিয় পাঠকবৃন্দ সবাইকে স্বাগতম জানাচ্ছি আমাদের আজকের আর্টিকেলে। মূলত আজ আমরা 5G স্মার্ট ফোন কেনার পূর্বে কি কি বিষয় মাথায় রাখতে হবে সে সম্পর্কে বিস্তারিত আলোচনা করব। তাহলে আসুন শুরু করা যাক।

5G স্মার্টফোন কেনার আগে যে বিষয়গুলি মাথায় রাখতে হবে

আপনি যদি মার্কেট সম্পর্কে জেনে থাকেন তাহলে এটা নিশ্চয়ই জানবেন– ৫জি স্মার্ট ফোন এখন বর্তমান সময়ে ভারতের স্মার্টফোন বাজারে চলতি ট্রেন্ড।

আর যে বা যারা এখন মিড-রেঞ্জ বা প্রিমিয়াম ক্যাটাগরির স্মার্টফোন কিনতে চাচ্ছেন তাদের কাছেও ফাইভ-জি ডিভাইস হলো প্রথম পছন্দের। তাছাড়াও বাজেট ফোন ব্যবহারকারীরাও এখন ফাইভ-জি স্মার্টফোন কেনার জন্য অধিক বেশি কৌতুহলী ও আগ্রহী। 

কেননা বর্তমানে ইউজারদের চাহিদার কথা মাথায় রেখে প্রতিনিয়ত একাধিক ব্র্যান্ড নিত্যনতুন ফাইভ জি স্মার্টফোন লঞ্চ করছে মার্কেটপ্লেসে। কিন্তু কথা হচ্ছে আপনি কিভাবে সঠিক ফোনটি বাছাই করবেন! কিভাবে বুঝবেন আপনি যে ফোনটি কিনছেন সেটা ফাইভ জি এবং ১০০% পিওর।

চিন্তা নেই আজকের আর্টিকেলে মূলত আমরা ফাইভ-জি হ্যান্ডসেট কেনার সাতটি গুরুত্বপূর্ণ টিপস আপনাদেরকে জানিয়ে দেব। তাই ধৈর্য সহকারে অবশ্যই মন দিয়ে পুরো আর্টিকেল পড়ুন এবং জেনে নিন 5g স্মার্টফোন কেনার আগে যে বিষয়গুলি মাথায় রাখতে হবে। 

ভালো 5G স্মার্ট ফোন নির্ধারণ করার উপায়

বর্তমান সময়টা এতটাই আধুনিক এবং চাঞ্চল্যকর যে, যদি আপনি একটু চালাক না হোন তাহলেই ঠকে যাবেন। তাই অবশ্যই মার্কেটপ্লেসে যাওয়ার আগে কিছু বিষয় জেনে শুনে নেওয়াটা জরুরী।

আরও পড়ুনঃ  বাংলাদেশ বাজারে আসতে চলেছে Xiaomi POCO M5 Pro 5G, জানুন দাম ও স্পেসিফিকেশন

আপনি একটা ভালো মানের ভাল ফোন আপনার নির্ধারিত বাজেটের মধ্যে কিনবেন। কিন্তু আপনি যদি মার্কেট সম্পর্কে না জানেন তাহলে সেই সমপরিমাণ টাকা দিয়েও আপনার প্রোডাক্টটি খারাপ হতে পারে। 

সত্যি বলতে– হতে পারে বললেও ভুল বলা হবে। বরং বলতে হবে যে আপনি ঠকে যাবেন এবং আপনার প্রোডাক্টটি সত্যিই খারাপ হবে। তাই অবশ্যই মার্কেটে ফোন কিনতে যাবার পূর্বে ফাইভ-জি স্মার্টফোন নির্ধারণের সময় আমাদের উল্লেখিত বিষয়গুলো মাথায় রাখতে ভুলবেন না। 

5G স্মার্টফোন নির্বাচনের কৌশল

আসলে ভালো ফোন নির্বাচন করাটা যে খুব একটা কঠিন কাজ এমনটা নয়। মূলত একটা ৪জি ফোন কিনতে গিয়ে আপনি যে সকল বিষয় আপনার মাথায় রাখেন ঠিক একইভাবে ফাইভ-জি স্মার্টফোন কেনার ক্ষেত্রেও আপনাকে সেই একই বিষয়ই মাথায় রাখতে হবে। তবে এর মধ্যে একটু পার্থক্য রয়েছে। আর সেটাই আমরা আপনাদেরকে জানাবো। 

আপনি যদি মার্কেটে কখনো ফাইভ জি ফোন কিনতে চান তাহলে অবশ্যই যে বিষয়টি মাথায় রাখবেন সেটি হচ্ছে– ফোনটিতে কোন কোন 5g স্পেক্ট্রাম ব্যান্ড সাপোর্ট করে! এখন প্রশ্ন উঠতে পারে যে কেন? তাদের উত্তরে বলব বর্তমানে মার্কেটে উপলব্ধ এমন অনেক স্মার্টফোন রয়েছে যেগুলো 5জি সাপোর্ট করবে।

কিন্তু সে সকল ফোনে ফাইভ-জি সাপোর্ট করলেই তাতে কিন্তু আদৌ ফাইভ-জি সাপোর্টেড স্পেক্ট্রাম ব্রান্ড থাকবে না। আর এ কারণেই মূলত আপনাকে অবশ্যই এই দিকে নজর দিতে হবে সঠিক ও সবচেয়ে ভালো 5g স্মার্টফোন নির্বাচনের ক্ষেত্রে। 

আরও পড়ুনঃ  সবচেয়ে কম টাকায় 5G স্মার্টফোন নিয়ে আসছে স্যামসাং

সেই সাথে মার্কেটে যাবার পূর্বে আপনি অবশ্যই আপনার বাজেট নির্ধারণ করবেন। কারণ আপনি যদি সবচেয়ে ভালো মানের ৫ জি স্মার্ট ফোন কিনতে চান তাহলে অবশ্যই কিন্তু আপনার বাজেট হাই হতে হবে। কেননা লো বাজেটে আপনি কখনোই ভালো প্রোডাক্ট এক্ষেত্রে অন্তত পাবেন না। 

সেই সাথে যদি সঠিক ফোন নির্বাচন করতে চান তাহলে ওই কোম্পানির অফিসিয়াল ওয়েবসাইটে ভিজিট করুন আর সেটা না করলে কোন লোকাল স্টোল-এ গিয়ে সেটির সম্পর্কে বিস্তারিত জানুন।

কেনার সময় অবশ্যই এটা জেনে নিন যে আপনি সুবিধাস্বরূপ কি কি ভোগ করতে পারবেন। কেন না কোন ফোনের অভ্যন্তরীণ গুণাগুণ এর পাশাপাশি সেটি ব্যবহার করে আপনি কতটা আনন্দ পাচ্ছেন সেটাও কিন্তু বেশ গুরুত্বপূর্ণ একটা বিষয়। 

এরপর দেখুন আপনি যে ফোনটি কিনতে চলেছেন সেই ফোনে পর্যাপ্ত ram এবং স্টোরেজ স্পেস আছে নাকি নেই! আর এটা যে দেখতে হবে এটা মনে হয় না কাউকে বলার প্রয়োজন আছে। কারণ Ram এবং স্টোরেজ সম্পর্কে সবাই অল্পবিস্তর আগে থেকেই জানেন। পাশাপাশি ব্যাটারি সম্পর্কেও ক্লিয়ারলি জানবেন। 

সেই সাথে মাথায় রাখবেন,

  • শুধুমাত্র ৫-জি সাপোর্টেট বলেই একটি নতুন ফোন কিনে ফেলা যাবে না। 
  • ৫জি ফোন কেনার সময় অবশ্যই মনে রাখতে হবে যে রেগুলার আপডেট অফার আসে এমন ফোন কেনা টা সুবিধাজনক।
  • নতুন ও ভালো মানের ফাইভ জি ফোনে বাজেট নিয়ে অবহেলা একদমই চলবে না। কেননা ভালো মানের ফোন পেতে হলে অবশ্যই টাকা দিতে হবে অর্থাৎ যত গুড় তত মিষ্টি ব্যাপারটা এমন। 
আরও পড়ুনঃ  এক দুর্দান্ত ফ্ল্যাগশিপ গেমিং ফোন। Vivo iQOO 9 pro স্পেসিফিকেশন

তাই যাদের মনে “5g স্মার্টফোন কেনার আগে যে বিষয়গুলি মাথায় রাখতে হবে” এ প্রশ্নটি বারবার ঘোরাফেরা করে তারা নিশ্চয়ই উত্তরটি পেয়ে গেছেন। 

5G মোবাইলের দাম ও ছবি

5g মোবাইল গুলো মূলত সর্বনিম্ন ৩২ হাজার টাকা থেকে কেনাটা সম্ভব হয়। তাই আপনি যদি ভালো মানের ভাল ফোন কিনতে চান তাহলে অবশ্যই ৩২ হাজার প্লাস বাজেট থাকতে হবে। নিচে কিছু ফাইভ-জি মোবাইলের ছবি দেওয়া করা হলো:

৫-জি স্মার্টফোন ব্যবহারের সুবিধা

মোবাইল ফোনের পঞ্চম জেনারেশন ইন্টারনেটকে সংক্ষেপে ফাইভ-জি নামে সম্বোধন করা হয়। যেটাতে অনেক দ্রুত গতিতে ইন্টারনেট তথ্য ডাউনলোড এবং আপলোড করা যায় সেই সাথে উপভোগ করা যায় নানা সুযোগ সুবিধা। ৫জি স্মার্টফোনগুলো মূলত প্রচুর সুবিধা নিয়ে মার্কেটে এসেছে যে কারণে মার্কেটপ্লেসে এর কদর এত বেশি এবং অডিয়েন্সরাও এতটা পাগল প্রায়। 

আপনি যদি 5জি স্মার্টফোন ব্যবহার করেন তাহলে যে কোন কাজ খুবই ফাস্ট করতে পারবেন। তাছাড়াও আজকাল মানুষ অনেক বেশি মোবাইল গেমস এ আগ্রহী।

আর এই ফোন গুলোতে আপনি দুর্দান্ত খেলতে পারবেন কোনরকম বাধা আসবে না। কেননা আগেই বলেছি এই ফোন খুবই দ্রুত গতিতে কাজ করবে। তাই যে বা যারা পাবজি, ফ্রী ফায়ার খেলতে পছন্দ করেন তাদের জন্য খুবই সুবিধাজনক প্রোডাক্ট এটি। 

পরিশেষে: তো সুপ্রিয় পাঠক বন্ধুরা, 5G স্মার্টফোন কেনার আগে যে বিষয়গুলি মাথায় রাখতে হবে-এ বিষয়ে তো সমস্তটা জানতে পারলেন। অবশ্যই আপনাদের মতামত কমেন্ট করে জানাবেন। সেইসাথে নিয়মিত এমন ইনফরমেশন রিলেটেড আর্টিকেল পেতে আমাদের সাথে থাকবেন। আল্লাহ হাফেজ।

সম্পর্কিত আর্টিকেল

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button

অ্যাডব্লকার ডিটেক্ট হয়েছে!

মনে হচ্ছে আপনি অ্যাড ব্লকার ব্যবহার করছেন। আমাদের সাইট ভিজিট করার জন্য আপনাকে অ্যাড ব্লকার বন্ধ করতে হবে। যদি অ্যাডব্লকার ব্যবহার না করেন, তাহলে পেজটি রিফ্রেশ করুন।